RSS ফিড

বৈশাখী উৎসব, ১৪১৩

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রাবস্থায় কবি সবুজ তাপস ও তার সুহৃদ বন্ধুরা সম্পূর্ন অরাজনৈতিক প্ল্যাটফর্ম হতে বৈশাখী উৎসব (১৪১৩) করতে অগ্রসর হয়েছেন। ‘আমার বৈশাখ আমার উৎসব’ স্লোগান ব্যবহার করে। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের অসহযোগিতার কারণে সেটা আর করা সম্ভব হয়নি। বৈশাখের শেষের দিকে (২৭ বৈশাখ ১৪১৩, ১০ মে ২০০৬) ষোলশহর রেলস্টেশনে উৎসব অনুষ্ঠানটি করতে হলো। সেদিন ছাত্রছাত্রীরা ক্লাস করার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় যায়নি, ষোলশহর স্টেশনে প্রাণের উৎসবে শরিক হতেই বাসা হতে বেরিয়েছিল। বটতলীর উদ্দেশ্যে হোক আর বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্দেশ্যে হোক, ষোলশহর স্টেশন হয়ে যাওয়ার সময় সকল ট্রেনই যাত্রীশূন্য হয়ে গন্তব্যে পৌছেঁছিল। সেদিন ষোলশহর স্টেশন যেন হয়ে গেল চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস। ছাত্রছাত্রীদের স্বতঃস্ফূর্ত উপস্থিতি যেন বলে দিচ্ছিল- তারা বহুদিন ধরে এরকম একটা জাকজমকপূর্ণ বৈশাখী উৎসব চেয়েছিল এবং ‘আগামী’র ব্যানারে তারা তা সফল করেছে।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রছাত্রীদের উদ্যোগে বড় আকারের বৈশাখী উৎসব অনুষ্ঠান এটাই ছিল প্রথম, যেটা ক্যাম্পাসে নয় শহরের ষোলশহর স্টেশনে অনুষ্ঠিত হয়েছিল। প্রতিকূল পরিস্থিতি থাকার কারণেই উৎসবটি ষোলশহর স্টেশনে হয়েছিল।বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের উপর ছিল ছাত্রশিবিরের আছর: প্রক্টর সকালে উৎসবের আয়োজকদের এককথা বলে, বিকেলে আরেক কথা।তাছাড়া দেশটাও ওই অশুভ শক্তির কব্জায় ছিল, সারাদেশে চলেছিল তালেবানি শাসন-শোষণ।
Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: